HSC Exam

আবারও সারাদেশে ঘূর্ণিঝড় আঘাত – HSC পরীক্ষা কি হবে ?

বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ সৃষ্টি হওয়ায় সেখানে বড় ধরনের ঘূর্ণিঝড় তৈরি হতে পারে বলে ধারণা করছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। HSC পরীক্ষা

এই ঘূর্ণিঝড় বাংলাদেশের উপরে এসে পড়বে। এখানে বাংলাদেশের অধিকাংশ জেলা ক্ষতিগ্রস্থ সম্ভাবনা রয়েছে।

মূলত বঙ্গোপসাগরে চলতি মাসে অনেকগুলো লঘুচাপ হচ্ছে। সেখান থেকে একটি লঘুচাপ বড় আকারে সুপার সাইক্লোন বা টর্নেডো হয়ে।

আরও পড়ুনঃ এইচএসসি পরীক্ষা ২০২২ ইংরেজি প্রশ্ন কেমন হবে ? কঠিন / সহজ ?

উপকূলে আঘাত হানতে পারে বলে ধারণা করা যাচ্ছে। এই ঘূর্ণিঝড়ের নাম সিত্রাং। বাংলাদেশে আঘাত হানার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি।

তাছাড়া ভারতের পশ্চিমবঙ্গের আঘাত হতে পারবে বলে ধারণা করা যাচ্ছে। আবহাওয়া দপ্তর তথ্য মতে ঘূর্ণিঝড়

আম্ফান এর চেয়েও বেশী শক্তিশালী হতে পারে নতুন ঘূর্ণিঝড়। 10 অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রের আবহাওয়া পূর্বাভাস

মডেল থেকে প্রাপ্ত সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী আগামী সপ্তাহে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড়

আরও পড়ুনঃ এইচএসসি পরীক্ষা ২০২২ নতুন রুটিন প্রকাশ – সকল বোর্ড দেখে নেও

সরাসরি বাংলাদেশ ভারতের পশ্চিমবঙ্গে উপকূলে আঘাত হানতে পারে বলে ধারণা করা যাচ্ছে।

আবহাওয়া ও জলবায়ু বিষয়ক গবেষক মোস্তফা কামাল পলাশ বলেন 18 অক্টোবর থেকে 25 অক্টোবর

তারিখ মধ্যে বঙ্গোপসাগরের সুপার সাইক্লোন সৃষ্টির আশঙ্কার কথা নির্দেশ করেছে আমেরিকা অধিদপ্তর থেকে।

আম্ফানের যে এলাকায় আঘাত হেনেছিল ঘূর্ণিঝড় সর্বশেষ পূর্বাভাস অনুযায়ী সেই এলাকায় সম্ভাবনা রয়েছে।

সমুদ্রের বায়ুচাপ 941 মিলিয়ন পর্যন্ত যেতে পারে। সেই সাথে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় 200 থেকে 250

আরও পড়ুনঃ এইচএসসি পরীক্ষা ২০২২ বাংলা প্রশ্ন কেমন হবে ? কঠিন / সহজ ?

কিলোমিটার পর্যন্ত উঠতে পারে। উপকূলে আঘাত হানলে 2007 সালে সিডরের চেয়ে কম ক্ষতি হবে না।

তাছাড়া সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড় যে এলাকায় আঘাত হানবে সেখানে উপকূলে প্রায় 15 থেকে 20 ফুট পর্যন্ত উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে হতে পারে বলে জানান তিনি।

এক্ষেত্রে এর কারণে পরীক্ষা কোন ধরনের প্রভাব পড়বে কিনা জানতে চাইলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একাধিক

কর্মকর্তা জানান আগামী নভেম্বর মাসের শুরুতেই এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

আরও পড়ুনঃ বিশ্বের সেরা 10 ধনী তালিকা প্রকাশ 2022 – Top 10 rich people

যদি পরিস্থিতি খারাপ হয় তখন হয়তোবা অবশ্যই তার প্রভাব এইচএসসি পরীক্ষায় পড়বে। তবে আপাতত পরীক্ষায়

আয়োজন করার পক্ষে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। যদি একদমই খারাপ হয় তখন হয়তোবা যে বোর্ডের অধীনে পরীক্ষা দিতে পারবে না

সেখানে পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণা করা হবে। তাছাড়া বাকি সকল বোর্ডের পরীক্ষা আয়োজন করা হবে। কারণ একটি বোর্ডের জন্য সকল

বোর্ডের শিক্ষার্থীদের সমস্যা তৈরি করে লাভ নেই। তাছাড়া চেষ্টা করা হবে স্বাভাবিক নিয়মে পরীক্ষা আয়োজন করা।

আরও পড়ুনঃ HSC পরীক্ষা পাস মার্ক কত নম্বর নতুন মানবন্টন

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button