SSC Exam

গনিতে কত পেলে পাস ? এসএসসি পরীক্ষা ২০২২ – জেনে নেও

Pinterest LinkedIn Tumblr

চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষার ২০২২ গণিত বিষয়ে মূল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ১০০ নম্বরের পরিবর্তে মাত্র ৫৫ নম্বরে।

এক্ষেত্রে কত নম্বরে শিক্ষার্থীরা পাস করবে বা কোন গ্রেড পাবে ? তা নিয়ে কথা বলব। মূলত নতুন নিয়মে

পরীক্ষা আয়োজন করার জন্য শিক্ষার্থীরা এ বিষয়গুলো জানে না। এই বিষয়গুলো অবশ্যই পরীক্ষার আগে জানা উচিত।

আরও পড়ুনঃ

কারণ এতে পরীক্ষার প্রস্তুতি ভালো ভাবে এই বিষয়গুলো মাথায় রেখে মূলত পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে হবে।

চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষা সকল বিষয়ে আয়োজন করা হচ্ছে অর্ধেক নম্বরে। 100 নম্বরের প্রশ্ন তৈরি করা হলেও গণিত বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ৫৫ নম্বরে।

যেখানে সৃজনশীল প্রশ্ন থাকবে 40 নম্বর অর্থাৎ চারটি সৃজনশীল প্রশ্নের উত্তর শিক্ষার্থীদের দিতে

হবে এবং বহুনির্বাচনী প্রশ্ন থাকবে 15 নম্বর অর্থাৎ যেকোনো প্রশ্নের উত্তর শিক্ষার্থীরা দিতে পারবে।

এখানে শিক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে সৃজনশীল ১১ টি প্রশ্ন থাকবে সেখান থেকে যে কোন চারটি প্রশ্নের উত্তর দিবে

আরও পড়ুনঃ

এবং নৈবিত্তিক ৩০ টি প্রশ্ন থাকবে সেখান থেকে যে কোনো পনেরো টি প্রশ্নের উত্তর দিতে পারবে

অর্থাৎ কোন ধরনের বাধ্যতা মূলক থাকছে না শিক্ষার্থীরা যে কোন বিভাগ থেকে প্রশ্ন অ্যানসার করতে পারবে।

এক্ষেত্রে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে সৃজনশীল এবং নৈবিত্তিকে গণিত বিষয়ে আলাদা ভাবে পাশ করতে হবে

অর্থাৎ সৃজনশীল এবং নৈবিত্তিক একসাথে পাস করা যাবে না। যদি কোনো শিক্ষার্থী সৃজনশীল এ ফেল করে

আরও পড়ুনঃ

তাহলে তার পুরো বিষয় ফেলে চলে আসবে। অর্থাৎ সৃজনশীলে 40 নম্বরের মধ্যে পাস করার জন্য

শিক্ষার্থীদের দরকার হবে 13 নম্বর এবং বহুনির্বাচনি 15 নম্বর এর মধ্যে শিক্ষার্থীদের জন্য দরকার

হবে 5 নম্বর অর্থাৎ যদি কোনো শিক্ষার্থীর 4 নম্বর পায় তাহলে সে গণিতের mcq তে ফেল করবে।

গণিতের এ প্লাস থেকে শুরু করে বাকি সকল গ্রেড এক্ষেত্রে একসাথে গ্রেড নির্ণয় করা হয় অর্থাৎ সৃজনশীল

এবং নৈবিত্তিক পাস এর পর নির্ণয় করা হবে। এক্ষেত্রে সর্বমোট কত নম্বর পেয়েছো তার উপর গ্রেড দেয়া হবে অর্থাৎ ৫৫ নম্বরের মধ্যে সৃজনশীল

এবং নৈবিত্তিক উভয় মিলিয়ে যদি শিক্ষার্থী ৪৪ নম্বর পায় তাহলে তাকে এ প্লাস দেয়া হবে যদি সে 38 নম্বর পায় তাহলে এ গ্রেড তাকে দেওয়া হবে।

আরও পড়ুনঃ

2 Comments

Write A Comment