SSC Examউপবৃত্তি

১০০০০ থেকে ৫০০০০ টাকা আর্থিক অনুদান দিবে শিক্ষার্থীদের

শিক্ষার্থীদেরকে আর্থিকভাবে সহায়তা প্রদান করার জন্য ১০ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত আর্থিক অনুদান দিবে।

আজকে আমরা এই অনুদান সম্পর্কে সকল শিক্ষার্থীদেরকে জানাবো। যেখানে ষষ্ঠ থেকে মাস্টার্স পর্যন্ত সকল শিক্ষার্থী আবেদন করতে পারবে।

উপবৃত্তি নিয়ে আরও পড়ুন

মাধ্যমিক পর্যায়ের ষষ্ঠ সপ্তম অষ্টম নবম দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থীর এখানে আবেদন করতে পারবে।

উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ে একাদশ দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা এখানে অনলাইনে আবেদন করতে পারবে এবং স্নাতক পর্যায়ে অনার্স মাস্টার্স শিক্ষার্থীর এখানে আবেদন করতে পারবে।

কত টাকা প্রদান করা হবে –

এখানে কোন ধরনের টাকার পরিমান নির্ধারণ করা হয়নি, সরাসরি শিক্ষার্থীদের প্রয়োজন অনুযায়ী টাকা পরিমাণ নির্ধারণ করা হবে

অর্থাৎ এখানে চিকিৎস অনুদান প্রদান করা হচ্ছে। যদি কোন শিক্ষার্থী অসুস্থ হয় তার অসুস্থতার খরচ হিসেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট কর্তৃপক্ষ।

তাদেরকে একটি আর্থিক সহায়তা প্রদান করবে, তারপর ১০ হাজার টাকা থেকে পঞ্চাশ হাজার টাকা যেকোনোটাই হতে পারে।

কারা আবেদন করতে পারবে –

আর্থিক অনুদান সকল শিক্ষার্থী আবেদন করার সুযোগ থাকলেও সবাইকে আবেদন করা সবার আবেদন গ্রহণযোগ্য হবে না।

কারণ যে সকল শিক্ষার্থী একমাত্র চিকিৎসার জন্য সমস্যার মধ্যে রয়েছে, আর্থিকভাবে তাদেরকে সহায়তা করা হবে।

যারা চিকিৎসার জন্য টাকা দরকার তারা এখানে তাদের ডকুমেন্টগুলো সাবমিট করলে যাচাই-

বাছাই করে যোগ্যতা নির্ধারণ করে মূলত টাকা করা হবে, ভুল তথ্য দিয়ে আবেদন করা উচিত হবে না।

সঠিক তথ্য দিয়ে যদি চিকিৎসা খরচ বহন করতে না পারে তাহলে অবশ্যই এখানে আবেদন করতে পরামর্শ রইল।

উপবৃত্তি নিয়ে আরও পড়ুন

অনলাইন আবেদন করার নিয়ম –

অনলাইনে আবেদন করতে হলে যেতে হবে প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট এর ওয়েবসাইটে সেখানে একটি অপশন পাবে যার নাম হচ্ছে

ই চিকিৎসা সেখানে শিক্ষার্থীরা আবেদন ফরম পাবে। প্রথমে শিক্ষার্থীকে নিবন্ধন করে নিতে হবে।

এর পরবর্তীতে আবেদন করুন অপশনে ক্লিক করে আবেদন করতে হবে। যেখানে শিক্ষার্থীর নিজের ছবি

জন্ম নিবন্ধন সনদের ছবি স্বাক্ষরের ছবি এবং অভিভাবক যেকোনো একজনের জাতীয় পরিচয়পত্রের ছবি আপলোড করে দিতে হবে।

এর পরবর্তীতে আবেদন ফরম পূরণ করতে বলা হবে, যেখানে শিক্ষার্থীর ব্যক্তিগত তথ্য এবং পারিবারিক তথ্য ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে

তথ্য চাওয়া হবে সর্বশেষ শিক্ষার্থীর কাছে ব্যাংক একাউন্ট অথবা মোবাইল ব্যাংক একাউন্টের তথ্য চাওয়া হবে।

অবশ্যই এখানে ব্যাংক একাউন্টের তথ্য দেওয়াটা খুবই ভালো হবে, কারণ এখানে টাকা অ্যামাউন্ট অনেক বেশি হতে পারে।

সর্বশেষ শিক্ষার্থীকে বলা হবে তা প্রত্যয়নপত্র সেখানে আপলোড করতে, এর পরবর্তীতে আবেদন কার্যক্রম সম্পন্ন হবে ৪ থেকে ৬ মাসের মধ্যে

জানিয়ে দেওয়া হবে। কোন কোন শিক্ষার্থী এখানে টাকা পাবে এবং সরাসরি তাদের কাছে টাকা পাঠিয়ে দেয়া হবে।

অনলাইন আবেদন করার নিয়ম ভিডিও করে দেখতে এখানে ক্লিক করুন

Related Articles

One Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button